A PHP Error was encountered

Severity: Warning

Message: file_get_contents(http://apidev.accuweather.com/currentconditions/v1/206690.json?language=bn-in&apikey=hoArfRosT1215): failed to open stream: HTTP request failed! HTTP/1.0 403 Forbidden

Filename: includes/header.php

Line Number: 7

Backtrace:

File: /var/www/vhosts/jistechnologies.com/jistechnologies.com/httpdocs/NewsBangla/application/views/includes/header.php
Line: 7
Function: file_get_contents

File: /var/www/vhosts/jistechnologies.com/jistechnologies.com/httpdocs/NewsBangla/application/controllers/News.php
Line: 60
Function: view

File: /var/www/vhosts/jistechnologies.com/jistechnologies.com/httpdocs/NewsBangla/index.php
Line: 315
Function: require_once

রবিবার, ০৯ মে ২০২১

বঞ্চনার অভিযোগ, জয়নগরের কংগ্রেস পুরপ্রধানের অনশন

নিজস্ব সংবাদদাতা

শেষ আপডেট: ২৪ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯, ০৩:২৬:২২

1550978782166242.jpg

শিলিগুড়ির পরে জয়নগর-মজিলপুর।


রাজনৈতিক কারণে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বঞ্চনার অভিযোগে আগেই সরব হয়েছিলেন সিপিএমের দখলে থাকা শিলিগুড়ির মেয়র অশোক ভট্টাচার্য। এবার একই অভিযোগে শনিবার একদিনের অনশন করলেন কংগ্রেস পরিচালিত জয়নগর-মজিলপুরের পুরপ্রধান সুজিত সরখেল। বিষয়টি সামনে রেখে তৃণমূলের বিরুদ্ধে প্রচারে নেমেছেন রাজ্য কংগ্রেসের প্রথমসারির নেতারাও।


কংগ্রেসের অভিযোগ, আবাস প্রকল্প সহ কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারি প্রকল্পের টাকা পাচ্ছে না পুরসভা। পুরবোর্ড কংগ্রেস পরিচালিত বলেই বারবার সরকারি বঞ্চনার শিকার হতে হচ্ছে বলে অভিযোগ পুরপ্রধানের। প্রতিবাদে এদিন সকাল থেকে পুর ভবনের সামনে থানার মোড়ে মঞ্চ বেঁধে অনশনে বসেন পুরপ্রধান সহ অন্যান্য কংগ্রেস কাউন্সিলাররা। তাদের সমর্থন জানান সিপিএম, এসইউসি, নির্দল কাউন্সিলাররাও। সুজিতবাবু বলেন, ‘‘বিভিন্ন প্রকল্পে আশেপাশের  পুরসভা টাকা পেয়েছে, কিন্তু আমরা পাইনি। জয়নগরের নাগরিকদের বঞ্চিত করা হচ্ছে। বাধ্য হয়ে আন্দোলনে নামতে হয়েছে।’’ এদিন সন্ধ্যায় অনশন শেষ হয়েছে। 


প্রসঙ্গত, একইভাবে ধর্মতলায় অনশনে বসার হুমকি দিয়ে রেখেছেন শিলিগুড়ির মেয়রও।


 এদিকে অনশনকে কটাক্ষ করে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব। জয়নগর টাউন তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি প্রবীর কুমার চক্রবর্তী বলেন, ‘‘পুরসভায় দুর্নীতি এবং স্বজনপোষণ চলছে। সকলের জন্য গৃহ প্রকল্পে এমন কয়েকজনের নাম পাঠানো হয়েছে, যাদের বাড়িতে এসি পর্যন্ত আছে। সম্প্রতি রাজ্য সরকারের ‘গ্রিন সিটি’ প্রকল্পের টাকা পেয়েছে পুরসভা। তাহলে টাকা না পাওয়ার অভিযোগ উঠছে কী করে!’’ স্থানীয় তৃণমূল বিধায়ক বিশ্বনাথ দাস বলেন, ‘‘পুরসভার তরফে আমাকে কিছু জানানো হয়নি। গরিব মানুষ বঞ্চিত হচ্ছে কিনা খোঁজ নেব। প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট দফতরে কথা বলব।’’

২২ ফেব্রুয়ারী ২০১৮
২২ ফেব্রুয়ারী ২০১৮
১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৮
১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৮
১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৮
১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৮

© 2018 Pratyahik News Bangla. All rights reserved